টিএমএসএস নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২

টিএমএসএস নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২ প্রকাশিত হয়েছে। যারা চাকরির অপেক্ষায় আছেন তাদের জন্য এটি একটি সু খবর। সকল প্রকার চাকরির খবর পাওয়ার জন্য নিয়মিত চোখ রাখুন আমাদের সাইটে।

টিএমএসএস নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২ দেখে আজই আবেদন করুন। এখানে নতুন সকল প্রকার চাকরির খবর পাবেন সবার আগে এক সাথে। আমরা প্রতিদিন চাকরির খবর আপডেট করি।

খুব সাহজে এনজিও এর চাকরি খবর পেতে আমাদের সাথেই থাকুন।

টিএমএসএস নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২

TMSS জাতীয় পর্যায়ে একটি বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা। অত্র সংস্থা কর্তৃক পরিচালিত HRD&T ডােমেইনেয়। নিয়ন্ত্রনাধীন টিএমএসএস পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট (T), নাটোর-এ নিম্ন বর্ণিত পদে জনবল নিয়ােগের উদ্দেশে ভিধাদের নিকট থেকে শর্তপূরণ সাপেক্ষে খায় আব্বান করা যাচ্ছে।

আগ্রহী প্রার্থীগণকে সদ্য তােলা ০৩ তিন কপি রঙিন পাসপাের্ট সাইজের সত্যায়িত ছবি, মােবাইল নম্বর,পুদি জীবনবৃত্তান্ত সকল শিক্ষাগত যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতার সনদপত্র এবং জাতীয় পরিচন্নপত্রের

সত্যায়িত অনুলিপিসহ আবেদন পরিচালক (এইচআর-এম এ্যান্ড এডমিন কুমার করতে হবে এবং আবদুলপত্র আগামী ২৩-০২-২০২২ ই তারিখে অফিস চলাকালীন সময়ের মধ্যে টিএমএসএস ফাউন্ডেশন অফিস, ঠেঙ্গামার, রংপুর রােড়, বড়া-৫৮০০ ঠিকানায় পৌছাতে হবে।

ঠেঙ্গামারা মহিলা সবুজ সংঘ সংক্ষেপে টিএমএসএস বাংলাদেশের একটি ক্ষুদ্রঋণ ভিত্তিক এনজিও। এটি ১৯৮০ সালে অশোক ফেলো, প্রফেসর ডঃ হোসনে আরা বেগম বাংলাদেশের বগুড়ায় প্রতিষ্ঠা করেন।

একটি নারী ভিত্তিক বাংলাদেশী প্রতিষ্ঠান। বাংলাদেশে দারিদ্র্য বিমোচন, নারীর ক্ষমতায়ন। আর্থ-সামাজিক অবকাঠামো উন্নয়ন এর উদ্দেশ্যে কাজ করে। টিএমএসএস বাংলাদেশের গ্রামাঞ্চলের সেবার মান উন্নত। সুলভ্য করার জন্য এনসিসি ব্যাংক লিমিটেড

সহ বেশ কিছু প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করে।টিএমএসএস জাতীয় পর্যায়ের একটি বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা।

অত্র সংস্থার এইচইএম গ্র্যান্ড সেক্টরের নিয়ন্ত্রনাধীন ঋণ কর্মসূচিতে নিম্নবর্ণিত পদে জনবল নিয়ােগের উদ্দেশ্যে উপযুক্ত প্রার্থীদের নিকট থেকে শর্তপূরণ সাপেক্ষে দরখাস্ত আহ্বান করা যাচ্ছে।

টিএমএসএস নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২

সময়সীমাঃ ১৪ জুলাই ২০২২
পদ সংখ্যাঃ ৭৫ টি

 

 

কালক্রমে বাংলাদেশে দরিদ্র মহিলাদের অন্যতম বেসরকারি সংস্থায় পরিণত হয়েছে। বগুড়া জেলার ঠেঙ্গামারা গ্রামের ফাতেমা বেওয়া ও জোমেলা বেওয়া নামক দুজন ভিক্ষুকের নেতৃত্বে একদল ভিক্ষুক ১৯৬৪ সালে ভিক্ষুক মহিলা দল তৈরি করে। ফাতেমা বেওয়া ভিক্ষা করা ছাড়া আরও কাজ করতেন। স্থানীয় সমাজকল্যাণ কর্মকর্তা আব্দুল মজিদ এর বাসায় তিনি তাকে ভিক্ষাবৃত্তি ছেড়ে দিতে উদ্বুদ্ধ করেন। আশপাশের এলাকার ভিক্ষুকদের সংগঠিত করেন। তারা সারাদিন বাড়ি বাড়ি ঘুরে সংগৃহীত ভিক্ষা থেকে এক মুঠো করে চাল জম করেন।

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.